আনুষ্ঠানিক, অনানুষ্ঠানিক এবং উপনুষ্ঠানিক শিক্ষা

প্রশ্ন:আনুষ্ঠানিক শিক্ষা (formal education),অনানুষ্ঠানিক শিক্ষা(Informal Education) ও উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা (Non formal Education) বলতে কি বুঝ?

উত্তর:
আনুষ্ঠানিক শিক্ষা:
স্কুল,কলেজ,মাদ্রাসা,বিশ্ববিদ্যালয় ও বিভিন্ন ইন্সটিটিউটের মাধ্যমে পূর্ব নির্ধারিত সময় সীমার মধ্যে নির্দিষ্ট বয়সে,নির্দিষ্ট শিক্ষাক্রম অনু্যায়ী স্তরে স্তরে যে শিক্ষা অর্জন করতে হয় তাকে আনুষ্ঠানিক শিক্ষা বা Formal Education বলে।
উন্নয়নশীল দেশগুলোর ক্রমবর্ধমান অগ্রগতির সাথে জনগণের জ্ঞানের পরিধি সম্প্রসারিত হয়।সে সঙ্গে আর্থ সামাজিক কর্মকাণ্ডেরও প্রসার ঘটে এবং নতুন নতুন সাংস্কৃতিক উপাদান এসে ভীড় জমায়।মানবসমাজের জ্ঞানও সংস্কৃতির সংরক্ষণ,ভবিষ্যৎ নাগরিকদের মধ্যে ও তা বিতরণ ,উৎকর্ষসাধন এবং সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে দক্ষ জনশক্তি বা বিশেষজ্ঞ সরবারহের জন্য অত্যন্ত সুসংগঠিতভাবে স্কুল কলেজের মাধ্যমে যে শিক্ষা কর্মসূচি উদ্ভাসিত এবং প্রবর্তিত হয়েছে সেটাকেই অনানুষ্ঠানিক শিক্ষা বলে নামকরণ করা হয়েছে..অন্যভাবে বলা যায়,শিক্ষার সর্বশেষ এবং কৃত্রিম ও নিয়ন্ত্রিত আধুনিক ধারাই হলো আনুষ্ঠানিক শিক্ষা যা,সম্পূর্ণ প্রতিষ্ঠানিক।

অনানুষ্ঠানিক শিক্ষা ( In Formal Education) :

জন্ম থেকে শুরু করে মৃত্যু পর্যন্ত দৈনন্দিন জীবনের বিভিন্ন ঘটনা প্রবাহের মাধ্যমে দেখে, শুনে, কাজ করে, অনুসরণ করে, চেষ্টা ও ত্রুটি বিচ্যুতি সত্ত্বেও এবং নতুন নতুন অভিজ্ঞতার মাধ্যমেও নিজ নিজ পরিবেশের প্রভাবে যে শিক্ষা লাভ করে তাকে অনানুষ্ঠানিক শিক্ষা বা In Formal Education বলা হয়।

শিক্ষার প্রথম ধারার সূত্রপাত হয় এই প্রক্রিয়ার মাধ্যমে। এই শিক্ষা সারা জীবন অব্যাহত থাকে। এই শিক্ষা সে পরিবারের কাছে, সমাজের কাছে, বড়দের কাছ থেকে প্রতিনিয়ত নিজের তাগিদেই শিখছে। অনানুষ্ঠানিক শিক্ষাই মানুষের আচার-আচরণ ঠিক করে দেয়, শিশুদের মানসিক বিকাশ এবং চরিত্র গঠনে মূখ্য ভুমিকা পালন করে। প্রাচীনকালে অনানুষ্ঠানিক শিক্ষা ছিল শিক্ষা লাভের প্রধান উপায় এবং এই শিক্ষা তৎকালীন সমাজে ছিল সর্বজনীন।

উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা (Non Formal Education)

অনানুষ্ঠানিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বহির্ভূত সুচিন্তিত ও সুসংগঠিত বিভিন্ন শিক্ষামূলক কর্মসূচী যার অধীনে বিভিন্ন বয়সের শিক্ষার্থীরা তাদের প্রয়োজন অনুযায়ী স্বল্প সময়ে উপযুক্ত শিক্ষা লাভে সক্ষম হয়, তাকেই উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা বা Non Formal Education বলে।

গণশিক্ষা, বয়স্ক শিক্ষা, জনসংখ্যা শিক্ষা, শিক্ষা প্রসাশন ও ব্যাবস্থাপনা, সঞ্জীবনী শিক্ষক প্রশিক্ষণ, শস্য উৎপাদন, মৎস্য ও গৃহপালিত পশু পালন সহ নানা রকমের কর্মকান্ডমূলক শিক্ষাই উপানুষ্ঠানিক শিক্ষার অন্তর্ভূক্ত। মূলত, দেশের আর্থ সামাজিক ব্যাবস্থার আলোকে এই শিক্ষা ব্যাবস্থার কার্যক্রম প্রসার পায়। তবে উপনুষ্ঠানিক শিক্ষা কোন কালে আনুষ্ঠানিক শিক্ষার সমান্তরাল শিক্ষা হিসেবে কাজ করতে পারেনা।

2 thoughts on “আনুষ্ঠানিক, অনানুষ্ঠানিক এবং উপনুষ্ঠানিক শিক্ষা”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *